রবিবার, নভেম্বর ২০, ২০২২

বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ সবার আগে

শহরে দুই সহোদরের ত্রাসের রাজত্ব সংবাদের প্রতিবাদ

বার্তা পরিবেশক :

জেলার বহুল প্রচারিত দৈনিক কক্সবাজার, দৈনিক দৈনন্দিনসহ বেশ কয়েকটি পত্রিকায় প্রকাশিত “কক্সবাজার শহরের দুই সহোদরের ত্রাসের রাজত্ব! ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে ত্রাস সৃষ্টি” শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটি আমার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।
উক্ত সংবাদে সত্যকে আড়াল করে একটি মনগড়া বানোয়াট ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশের মাধ্যমে মূলত প্রকৃত বাঁকখালী নদী দখলবাজদের প্রতিষ্ঠিত করা হয়েছে।
সংবাদে বলা হয়েছে আমরা দুই সহোদর নেতৃত্বে কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণ করি। প্রকৃত পক্ষে আমার বাবা এই শহরের একজন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। মূলত আমাদের পারিবারিক ব্যবসায়ীক সুনামকে বিতর্কিত করতে একটি কুচক্রী মহল মিথ্যা তথ্য দিয়ে এমন মিথ্যা ও আজগবি সংবাদ প্রকাশ করেছে।
উক্ত সংবাদে আমাদের দুই ভাইয়ের নেতৃত্বে কিশোর গ্যাং থেকে শুরু করে সেসব অপরাধের বর্ণনা তুলে ধরা হয়েছে তার ১% যদি সত্যতা থাকত তাহলে আমাদের বিরুদ্ধে ডজন ডজন মামলা থাকতো।
আমরা চ্যালেঞ্জ করে বলতে চাই আমাদের দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে যদি কোন চাঁদাবাজি, ছিনতাই, মাদক ব্যবসা সহ সমাজ বিরোধী কোন কর্মকাণ্ডে জড়িত আছি প্রমান করতে পারলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যা সিদ্ধান্ত নিবে তা মাথা পেতে নিব।
প্রকৃত ঘটনা হচ্ছে বাঁকখালী নদীর জেগে উঠা চরের জমিতে সরকারি বেসরকারি অনেক কর্মকর্তা কর্মচারীদের মতো আমরাও কিছু অংশ জমি ক্রয় করি। উক্ত জমির মালিকানা দাবীদারদের কাজ থেকে যা লিখিত কাগজপত্র রয়েছে।
কিন্তু কিছু দিন আগে একটি ভূমিদস্যু চক্র রাতের আধারে প্যারাবন কেটে রাতারাতি মাটি ভরাট করে স্থাপনা নির্মাণ করাকে কেন্দ্র করে পরিবেশ অধিদপ্তর কতৃক মামলা দায়ের করে। এতে সকল দখলদার জমির মালিকদের আসামী করা হয়। কিন্তু আমার ক্রয়কৃত জমিতে কোন প্যারাবন না থাকার পরও এমনকি কোন স্থাপনা না থাকার পরও আমাকে এবং আমার ভাইকে উক্ত মামলায় আসামি করে।
আমরা আশাবাদী সঠিক তদন্ত হলে সেটি প্রমাণিত হবে।
এদিকে পরিবেশ অধিদপ্তরের বেশ কয়েকটি মামলা চলমান থাকার পরও একটি অশুভ চক্র ভূমিদস্যুরা রাতের আধারে পুনরায় প্যারাবন কেটে জমি দখলে মেতে উঠেছে।
যাদের কারণে আমরা বার বার মিথ্যা মামলার আসামি হয়েছি। ইতিমধ্যে পরিবেশ অধিদপ্তরের লোকজন বার বার সর্তক করে বলেছে প্যারাবন দখল হলে কেউ গাছ কাটলে সকল দখলদারদের বিরুদ্ধে পুনরায় মামলা হবে।
বিষয়টি আমাদের ভয়ের কারণ হয়ে গেছে, কিন্তু গত সপ্তাহ দুই সপ্তাহ ধরে এক ব্যক্তি ঈদগাহ চকরিয়া থেকে শ্রমিক এনে রাতের আধারে প্যারাবন কেটে দখল করছে। প্যারাবন কাটা নিয়ে মূলত আমরা বাধা দেয়ার কারণ হলো, পুনরায় যদি পরিবেশ মামলার আসামি হতে হয় সেই ভয়ে,এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে ভূমিদস্যু চক্র।
বিষয়টিকে ভিন্ন ভাবে প্রভাবিত করতে মূলত সংবাদটি প্রচার করা হয়েছে।
আমি বা আমরা উক্ত সংবাদের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি একই সাথে উক্ত সংবাদে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সচেতন মহলকে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি।
একই সাথে প্রকৃত ঘটনা অনুসন্ধানের জন্য সাংবাদিকসহ প্রশাসনের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

নিবেদক:
তাইসাদ সাব্বির
তায়েফ আহমেদ

সর্বশেষ খবর

সামাজিক সম্প্রীতি রক্ষায় তরুণদের নিয়ে উখিয়ায় যুব সম্মেলন

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজারের উখিয়ায় অনুষ্ঠিত হয়েছে সামাজিক সম্প্রীতি রক্ষায় তরুণদের অংশগ্রহণ ও ভূমিকা শীর্ষক যুব সম্মেলন। শনিবার (১৯ নভেম্বর) সকালে, উপজেলা সদরের পাতাবাড়ী খেলার...

পালিয়ে যাওয়া দুই জঙ্গিকে ধরিয়ে দিতে ২০ লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা : রেড এলার্ট জারি

টিটিএন ডেস্ক: রাজধানী ঢাকার আদালত থেকে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নিয়েছে তাদের সহযোগীরা। জঙ্গিরা জাগৃতি প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী ফয়সাল আরেফিন দীপন হত্যা মামলা এবং লেখক ও...

রামুতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পরিচয়ে গরু ডাকাতি

রামু প্রতিনিধি: রামুতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য পরিচয় দিয়ে একই রাতে নিয়ে গেছে দুই পরিবারের পাঁচটি গরু। রবিবার ভোর রাতে উপজেলার ফতেখাঁরকুল ইউনিয়নের মধ্যম মেরংলোয়া গ্রামের...

২২তম বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ দেখবেন যেভাবে

টিটিএন স্পোর্টস ডেস্ক : কাতার-ইকুয়েডর মধ্যকার ম্যাচের মাধ্যমে শুরু হতে যাচ্ছে ফিফা বিশ্বকাপে ২২তম আসর। ম্যাচটি শুরু হবে আজ রোববার (২০ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় রাত...