শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২৩

বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ সবার আগে

রিকশার মতোই মেট্রোরেলের সর্বনিম্ন ভাড়া ২০ টাকা: ওবায়দুল কাদের

 

 

টিটিএন ডেস্ক:

মেট্রোরেলের সর্বনিম্ন ভাড়া রিকশার সর্বনিম্ন ভাড়ার সমান বলে দাবি করেছেন সড়ক পরিবহন এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, রিকশার সর্বনিম্ন ভাড়া ২০ টাকা, মেট্রোরেলেরও সর্বনিম্ন ভাড়া ২০ টাকা।

সর্বনিম্ন ভাড়া নিয়ে নানা সংগঠন আপত্তি জানালেও বাস্তবতার নিরিখে এই ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন তিনি।

দেশের প্রথম মেট্রোরেল উদ্বোধন হতে যাচ্ছে বুধবার (২৮ ডিসেম্বর)।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বেলা ১১টায় এর উদ্বোধন করবেন। মেট্রোরেলের সর্বনিম্ন ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ২০ টাকা।

সড়ক পরিবহন মন্ত্রী বলেন, প্রত্যেকে আনন্দের সঙ্গে এটা গ্রহণ করবে। ভাড়া একটা বিষয়, তবে বাস্তবে এটা সবাই গ্রহণ করবে। সর্বনিম্ন রিকশাভাড়া এখন ২০ টাকা।

মঙ্গলবার (২৭ ডিসেম্বর) বেলা ১২টায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে মেট্রো স্টেশনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, এখন যে অবস্থান ঢাকা সিটিতে, আপনি উত্তরা থেকে কমলাপুর আসবেন ১০০ টাকা। কত মিনিটে আসবেন ৩৮ মিনিটে। তাহলে কোথায় ক্ষতি হলো?

এ সময় মেট্রোরেলের পরিচালক এন এম সিদ্দিক বলেন, আপনি নিশ্চয়ই কলকাতা মেট্রোর সঙ্গে তুলনা করছেন। এটা কখন হয়েছে একবার একটু চিন্তা করে দেখেন। আর কলকাতা মেট্রোরেলে কী সুবিধা রয়েছে এবং এখানকার মেট্রোরেলে কী ধরনের সুযোগ-সুবিধা রয়েছে সেটা দেখেন।

মেট্রোরেলে সময় অনেক কম লাগবে জানিয়ে এমডি বলেন, আমাদের ননস্টপ আছে তাতে ১০ মিনিট ১০ সেকেন্ডে যাতায়াত করা যাবে। উত্তরা থেকে আপনি এমনি যদি আসেন আপনার কতক্ষণ লাগবে, এটা চিন্তা করে দেখেন।

মেট্রোরেল এমডি জানান, মেট্রোরেলের কারণে ৪২ হাজার কোটি টাকা সাশ্রয় হবে।

তিনি বলেন, ভাড়াটা যেটা ঠিক করা হয়েছে সেটা বর্তমান প্রেক্ষাপটে। আপনি যদি টাইম মেশিনে পেছনে চলে যান তারপর যদি হিসাব করেন তাহলে তা হবে না। আপনি সম্প্রতি যেসব দেশের মেট্রোরেল তৈরি হয়েছে তার সঙ্গে আপনি তুলনা করবেন দেখবেন যে, আমরা সেই জায়গাটাতে আছি।

মেট্রোরেল পরিচালক জানান, মেট্রোরেল বিদ্যুতে চলাচল করবে। যে দেশে বিদ্যুতের দাম যেমন সে অনুযায়ী ভাড়া নির্ধারণ করা হয়।

তিনি বলেন, এটা একেবারে সর্বনিম্ন ভাড়া এবং এই ভাড়া দিয়ে মেট্রোরেল লাভজনকভাবে পরিচালনা করা যাবে না।

এখন যে স্টেশনগুলো চালু করা হচ্ছে না, সেগুলো কবে চালু হবে এমন এক প্রশ্নের জবাবে এন এম সিদ্দিক বলেন, প্রত্যেকটা স্টেশন প্রস্তুত আছে। এখানে কোনো তাড়াহুড়ার বিষয় নেই। আমরা একাধিক বার বলেছি। মানুষের অভ্যস্ততা হল বড় বিষয়। এজন্য এটা করা হয়েছে৷ মানুষের অভ্যস্ততার সঙ্গে সামঞ্জস্য করার জন্য আমরা এটা করেছি।

তিন মাস পরে ২৬ শে মার্চ সবগুলো স্টেশনে ট্রেন থেমে যাবে এবং আস্তে আস্তে মানুষ যখন অভ্যস্ত হয়ে যাবে তখন ট্রেনের সংখ্যাগুলো বাড়বে।

সর্বশেষ খবর

মেরিন ড্রাইভে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত -১, আহত ১ জনের অবস্থা আশংকাজনক

নিজস্ব প্রতিবেদক : কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভে সড়ক দুর্ঘটনায় মামুনুর রশীদ চৌধুরী নামের এক শিক্ষার্থী মারা গেছে। দূর্ঘটনায় মো: হাসান নামের একজন গুরুতর আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (...

বাহারছড়ায় নারী এনজিও কর্মীর মরদেহ উদ্ধার

শাহেদ হোছাইন মুবিন : কক্সবাজার শহরের পশ্চিম বাহার ছড়া এলাকায় নিশাত আহম্মেদ নামের এক নারী এনজিও কর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি উন্নয়ন সংস্থা...

একাত্তরের পরাজিতরা আজও বিশৃঙ্খলা চালানোর চেষ্টা করছে- রামুতে এমপি বাবু

হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী: একাত্তরের পরাজিত শত্রু ও তাদের অনুসারীরা আজও আন্দোলনের নামে বিশৃঙ্খলা চালানোর চেষ্টা করছে। বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে তাদের আর জায়গা নেই। তারা পঙ্গু হয়ে...

টেকনাফে ২৪ লাখ টাকায় বিক্রি হলো ২০০ মন মাছ

মোহাম্মদ নোমান, টেকনাফ: কক্সবাজারের টেকনাফ উপকূলের বঙ্গোপসাগরের জেলেদের জালে প্রায় ২০২ মণ উলুয়া মাছ ধরা পড়েছে, বিক্রি হয়েছে প্রায় ২৪ লাখ টাকায়। ধরা পড়া প্রতিটি...