বৃহস্পতিবার, সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২২

বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ সবার আগে

ইয়াবা মামলার আসামীকে খালাস দিয়ে বাদী, তদন্ত কর্মকর্তা এবং ২ স্বাক্ষীকে শোকজ আদালতের

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ইয়াবা মামলার আসামী আবদুর রহমানকে খালাস দিয়েছে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত। একই সাথে মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলা করা, প্রতিবেদন দেওয়া ও সাক্ষ্য দেওয়ায় মামলার বাদী, তদন্ত কর্মকর্তা ও মামলার দুই স্বাক্ষীকে শোকজ করেছে আদালত। তারা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কক্সবাজার জেলা কার্যালয়ে কর্মরত রয়েছেন। আদেশে আগামী ২৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আদালতে স্বশরীরে হাজির হয়ে কেন তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে না তার ব্যখা দিতে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর ) দুপুরে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আবদুল্লাহ আল মামুন ওই রায় ঘোষনা করেন।
খালাসপ্রাপ্ত রহমান উখিয়া উপজেলা জালিয়াপালং ইউনিয়নের মনখালি গ্রামের ফরিদের ছেলে।
মামলার এজাহার থেকে প্রাপ্ত তথ্য মতে, ২০২১ সালের ৬ জানুয়ারী রাত সাড়ে ৯ টায় কলাতলীর শুকনাছড়ি এলাকার মেরিন ড্রাইভ সংলগ্ন মনছুর কুলিং কর্নারের সামনে থেকে আববদুর রহমান ও নুরুল আমিনকে ১০ হাজার ইয়াবা সহ দুইজনকে আটক করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের কক্সবাজারের পরিদর্শক জীবন বড়ুয়া । ইয়াবাগুলো রহমানের ডানহাতে থাকা শপিংব্যাগে ছিল বলে এজাহারে উল্লেখ রয়েছে। পরে একই বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারী মামলা থেকে নুরুল আমিনকে বাদ দেওয়ার আবেদন করে আদালতে চার্জশীট দাখিল করে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কক্সবাজারের উপ- পরিদর্শক কামরুজাম্মন। এতে ৬ জনকে স্বাক্ষী করা হয়। এরপর সেই বছরের ১৬ সেপ্টেম্বর আবদুর রহমান অভিযুক্ত করে চার্জ গঠন করে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত।
চার্জশীট থেকে প্রাপ্ত তথ্যমতে স্বাক্ষীরা হলেন, মামলার বাদী মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কক্সবাজারের পরিদর্শক জীবন বড়ুয়া, তদন্ত কর্মকর্তা উপ- পরিদর্শক কামরুরজ্জামান, সহকারী উপ- পরিদর্শক শহিদুল ইসলাম ও সিপাহি আবুল কালাম আজাদ। এছাড়া মামলার পাবলিক সাক্ষী হিসেবে রয়েছে এজাহারে দেখানো ঘটনাস্থল শুকনাছড়ি মনছুর কুলিং কর্ণারের মালিক মনছুর আলম ও তার বাবা নুরুল হাকিম।

এবিষয়ে রাষ্ট্রপক্ষের সহকারী সরকারী কৌঁসুলী মোজাফফর আহমদ হেলালী বলেন, ওই মামলায় আসামী পক্ষে দুইজরে সাফাই সাক্ষ্য গ্রহন করেছে আদালত । তারা হলেন, উখিয়ার ইনানীর পূর্ব নুরার ডেইলের মৃত নজির আহমদের ছেলে সানাউল্লাহ এবং একই উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নের বড় ইনানির ছেলে বাদশা মিয়ার ছেলে নুরুল আমিন রানা।

তিনি আরো বলেন, সাফাই স্বাক্ষীরা আদালতকে জানিয়েছে ঘটনার দিন তারা দুইজন ইনানীর আব্বাসী রেষ্টুরেন্টে চা খাচ্ছিল। সেখান বসে রানা রহমানকে ফোন করে। পরে দুই মিনিটের মধ্যে রহমান সেখানে আসে । এর কিছুক্ষন পর দুটি ওয়াকিটকি কোমড়ে থাকা দুই ব্যক্তি রহমানকে গিয়ে নাম জিজ্ঞেস করে। রহমান তার নাম জানালেই তাকে হ্যান্ডক্যাপ পেরিয়ে নিয়ে আসা হয়। সেখানে রহমানের কাছ থেকে কোন ইয়াবা পায়নি।
জনাব মোজাফফর আরো বলেন, জীবন বড়ুয়ার দায়ের করা মামলার ৬ জন স্বাক্ষীর মধ্যে ৪ জনেই মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অদিদপ্তরে কর্মরত। সাফাই স্বাক্ষীর সাক্ষ্য, তদন্ত কর্মকর্তার চার্জশীট, মামলার বাদীর এজাহার ও সাক্ষীদের সাক্ষ্যতে আদালতের মনে হয়েছে মামলাটি সাজানো। এইজন্য রহমানকে খালাস দিয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কক্সবাজারের ওই ৪ জন কর্মকর্তা কর্মচারীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা কেন নেয়া হবে না তা জনতে চেয়ে শোকজ করেছে আদালত। তাদেরকে আগামী ২৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে স্বশরীরে আদালতে হাজির হয়ে তার ব্যখা দিতে বলা হয়েছে।
তিনি আরো বলেন, আদালত মনে করেছে ইয়াবাগুলো রহমানের কাছে পাওয়া যায়নি। অন্য কারো কাছ থেকে নিয়ে তাকে ফাসানো হয়েছে। নতুবা রহমানকে এক জায়গা থেকে আটক করে মিথ্যা তথ্য দিয়ে মামলাটি লিপিবদ্ধ হয়েছে। রায় ঘোষনার সময় অভিযুক্ত রহমান আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তিনি জামিন পাওয়ার পর থেকে আর হাজির হননি।

এবিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কক্সবাজারের উপ- পরিদর্শক কামরুরজ্জামান বলেন, মাসে দুই তিনটি চার্জশীট আদালতে দিয়ে হয। কোন মামলার চার্জশীটে কি লেখা রয়েছে মনে নেই। আদালতের আদেশ এখনো পাইনি পেলে আদেশ অনুযায়ী কাজ করব।
আর মামলার বাদী ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কক্সবাজারের পরিদর্শক জীবন বড়ুয়া বলেন, আদালত যদি আমাদের কাছে ব্যখা চেয়ে থাকে তবে ব্যখা দিব।

সর্বশেষ খবর

রোহিঙ্গাদের ফেরানোর চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, মানবিক কারণে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে বাংলাদেশ। তাই রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরানোর চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান মন্ত্রী। বৃহস্পতিবার (১৫...

রামু উপজেলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শ্রেষ্ঠ সভাপতি সাংবাদিক হাফিজ

নিজস্ব প্রতিবেদক: রামু উপজেলায় প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির শ্রেষ্ঠ সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন উদীয়মান রাজনীতিক ও সাংবাদিক হাফিজুল ইসলাম চৌধুরী। গর্জনিয়া ইউনিয়নের ঐতিহ্যের পোয়াংগেরখিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়...

সাগরে ফিরছে জেলেরা

মোজাম্মেল হক: এক সপ্তাহের মতো বৈরী আবহাওয়া শেষে সাগরে মাছ শিকারে যাচ্ছে জেলেরা। সতর্কতা সংকেত উঠে যাওয়ার পর বৃহস্পতিবার ভোরেই ট্রলার গুলো কূল ছাড়তে শুরু...

কক্সবাজারে এসএসসির প্রথম দিনে বহিষ্কার-১, অনুপস্থিত ৪৬০

সিয়াম সোহেল : চলতি বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার বাংলা ১ম পত্র বিষয়ের উপর প্রথম পরীক্ষা শেষ হয়েছে। প্রথম দিনেই কক্সবাজারে ১ মাদ্রাসা শিক্ষার্থী বহিস্কার...